প্লেউইন লটারি

প্লেউইন লটারি, যা প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক দ্বারা পরিচালিত এবং সিক্কিম সরকার দ্বারা অনুমোদিত, ভারত জুড়ে খেলোয়ারদের অনলাইন এবং রিটেইল লটারি গেইমস সরবরাহ করতো। যদিও, ট্যাক্সের উর্ধ্বগতি সামলাতে না পেরে এবং ঋণগ্রস্থ হয়ে যাওয়ার পর ২০১৯ সালে কোম্পানি বন্ধ হয়ে যেতে বাধ্য হয়।

Want to play the Lottery online? Download a VPN and follow the instructions here.

Download the Express VPN now

প্লেউইনের কী হয়েছিল?

কোম্পানির সমস্যা গুলো শুরু হয়েছিল ২০১৪ সালে, যখন প্লেউইন ওয়েবসাইট অনলাইনে রাজ্যে নিষিদ্ধ লটারি টিকেট বিক্রি করা জন্যে অন্ধ্র প্রদেশ পুলিশের ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (সিয়াইডি) তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারী করে। প্লেউইন ভারতের অন্যান্য জায়গায় তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পেরেছিল।

২০১৭ সালে, ভারতীয় লটারি ইন্ডাস্ট্রি একটি বড় ধাক্কা খায়। ওইবছর জুনে, গুডস এন্ড সার্ভিস ট্যাক্স কাউন্সিল (জিএসটি) পুরো দেশ জুড়ে লটারি টিকেট ক্রয় এর ওপর দ্বিগুণ ট্যাক্স এর আদেশ জারি করে। দ্বিগুণ ট্যাক্স হার অনুযায়ী, বেসরকারি সরবরাহকারী দ্বারা পরিচালিত লটারি ২৮ শতাংশের সর্বোচ্চ ট্যাক্স ব্র্যাকেটের ভেতর পরে যায়। এই দ্বিগুণ ট্যাক্সের বিরুদ্ধে অসংখ্য প্রতিবাদ হয়, কিন্তু লাভ হয় নি।

এই উচ্চ ট্যাক্স এর জন্য খরচ বেড়ে যাওয়ায় ইন্ডাস্ট্রির অসখ্যা বিক্রেতা বাধ্য হয় তাদের ব্যবসা বন্ধ করে দিতে। প্লেউইনের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে, প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড তাদের লটারি টিকেটের মুল্য ৩০% বাড়িয়ে দেয়। এটি তাদের রেভিন্যু কে আরো ক্ষতিগ্রস্থ করে।.

কর্পোরেট ইনসলভেন্সি রেজুলুশন প্রসেস ফিল্ড

৩০শে এপ্রিল ২০১৯ এ, ইনসলভেন্সি এবং ব্যাংকরাপ্সি কোড, ২০১৬ এর সেকশন ৭ অনুসারে সাগর ই প্রাইভেট লিমিটেড প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড এর বিপক্ষে একটি পেটিশন জারি করে, যেখানে দাবী করা হয় যে কোম্পানি টি ১,৬০,৩৯,০৯৩/- কোটি রুপির পেমেন্ট প্রদান করতে ব্যর্থ হয়।

১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ এ, প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড সাগর ই প্রাইভেট লিমিটেড এর সাথে একটি লোনের চুক্তিতে যায়, যেখানে তারা ১৮% পি,এ সুদে ২,২৫,০০,০০০/- রুপির লোন আবেদন করে , যা ৩০শে এপ্রিল,২০১৯ এর মধ্যে পরিশোধ করার বাধ্যবাধকতা সহ ছিল। প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড ক্রেডিট সুবিধা চালু করতে পারলেও তারা তাদের কর্যা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়। অসংখ্য চিঠি এবং স্মরণিকা প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড কে পাঠানো হয়, যা তারা সম্মান করতে পারে নি, তাই এই পেটিশন।

সাগর ই শপ প্রাইভেট লিমিটেড দ্বারা প্রদর্শিত খতিয়ান অ্যাকাউন্ট পরিষ্কারভাবে প্রদর্শন করেছে পেটিশনে যে পরিমাণটি দাবি করা হয়েছিল তা হিসাব অ্যাকাউন্টের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। দুপক্ষেরই কথা শোনার পর, কর্পোরেট ডেবটরের জন্য উপস্থিত জ্ঞানী কাউন্সেল দায় এবং একই সাথে ব্যর্থতার সাথে সম্মত হয় এবং পেটিশন জারি করার ক্ষেত্রে কোন অবজেকশন দেওয়া হয় নি।

প্যান ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড বাধ্য হয় প্লেউইন এর কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে, এবং ফলাফলস্বরুপ লটারি ড্রগুলো তাৎক্ষণিকভাবে সমাপ্ত হয়। কোম্পানিটি ২০১৯ সালের অক্টোবরে তাদের ওয়েবসাইট এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি বার্তা প্রেরন করে, তারা বলেঃ “টেকনিক্যাল সমস্যাজনিত কারণে আমাদের ড্র গুলো আর বিক্রির জন্য উপযুক্ত নয়। আমরা আপনাদের শীঘ্রই জানাবো।”

কিছু প্লেউইন গেইমস, যেমন স্যাটারডে সুপার লোটো এবং টুয়েসডে থান্ডারবল, ইতোমধ্যেই থামিয়ে দেওয়া হয়েছে ২০১৯ এর জুন এবং জুলাই এ। ওই সময়ে প্লেউইন ওয়েবসাইটে একটি ঘোষণায় বলা হয় যে এই গেইমসগুলো সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে এবং আশা করে হচ্ছিল যে বছরের শেষের দিকে এদের পুনরায় চালু করা হবে। যদিও, প্লেউইনের বন্ধের আগে লটারিগুলো ফিরে আসে নি, এবং তখন থেকে কোন গেইমসই তাদের জায়গায় আসে নি।

প্লেউইন এর বন্ধের পরেও এখনো ভারতে অনলাইন লটারি খেলা সম্ভব। গেইমস যেমন লোটো ইন্ডিয়া এবং জালদি ৩ অনলাইনে আছে- লটারি টিকেট পেইজে যান আপনার প্রবেশ গুলো পাওয়ার জন্য।